Comilla TV - The First online TV of Comilla

পদ্মাসেতুর ৩৪তম স্প্যান বসলো, বাকি আছে ৭টি

কুমিল্লা.টিভি

প্রকাশিত : ০৪:২৭ পিএম, ২৫ অক্টোবর ২০২০ রবিবার

স্বপ্নের পদ্মাসেতুর ৩৪তম স্প্যান স্থাপনের পর সেতুর ৫ হাজার ১০০ মিটার সম্পন্ন হলো। আজ রোববার (২৫ অক্টোবর) সকাল ১০টা ৫ মিনিটে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তের ৭ ও ৮ নম্বর পিলারে এ স্প্যানটি বসানো হয়। এতে করে সেতু সম্পূর্ণভাবে দৃশ্যমান হতে মাত্র বাকি থাকলো মাত্র ৭টি স্প্যান। সেতু কর্তৃপক্ষের সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীরা জানান এ মাসের মধ্যে তাদের আরেকটি স্প্যান বসানোর পরিকল্পনাধীনের কথা।

 

সেতু কাজ দ্রুতগতিতে চলছে সেটায় প্রতীয়মান হলো ৩৩তম স্প্যান বসানোর পর ঠিক এক সপ্তাহের মধ্যে ৩৪তম স্প্যানটি বসানো। চলতি মাসের ১৯ অক্টোবর মাওয়া প্রান্তের ৩ ও ৪ নম্বর পিলারের ওপর বসানো হয় ৩৩তম স্প্যানটি।

 

নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আব্দুল কাদের বলেন, মহামারী করোনা ভাইরাস ও অতিরিক্ত বন্যার কারণে প্রায় ৪টি মাস বন্ধ ছিল স্প্যান বসানোর কার্যক্রম। তবে, সমস্ত দূযোর্গ মোকাবেলা করে সেতুর কাজ এখন দ্রুততর গতিতে চলছে। পদ্মা নদীর স্রোত ও পানির গভীরতা বর্তমানে আমাদের অনুকূলে আসাতে একের পর এক স্প্যান বসানোর কাজ সময়মত করতে পারছি।

 

আব্দুল কাদের জানান, গতকাল শনিবার (২৪ অক্টোবর) বিকাল বেলা মুন্সিগঞ্জের মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ‘তিয়ান-ই’ ভাসমান ক্রেনে করে ‘৩ হাজার ৬০০ টন’ ধারণক্ষমতার  ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের এবং ৩ হাজার ১৪০ টন ওজনের ‘টু-এ ’ নামের এই দুটি স্প্যান ৭ এবং ৮ নং নির্দিষ্ট পিলারের বরাবর যায়। কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে খুব অল্প সময়ে দূরত্ব কম হওয়ায় নির্দিষ্ট পিলারের পাশে স্প্যানটি পৌঁছে যায়। এবং পিলারের কাছে নোঙর করা হয় ভাসমান ক্রেনটি। স্প্যানটি নেওয়া হলেও দিনের আলো শেষ হওয়াতে এবং দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে স্প্যানটি বসানো সম্ভব হয়নি। অন্যদিকে পদ্মা নদীর নীচে তলদেশের মাটি অসমান ছিল। সেজন্য নোঙর করা স্প্যানটি বসানো হয়নি। আজ সকাল বেলা ৬ টা থেকে ৮ টা পর্যন্ত সার্ভে করা হয়। ঠিক ৮টা থেকে স্প্যানটি পিলারের ওপর তোলার কার্যক্রম শুরু হয়। এদিকে ঠিক সকাল ১০টা ৪মিনিটে স্প্যানটি সফলভাবে বসানো হয়।

 

পদ্মা সেতু কর্তৃপক্ষ বলেছে, চলতি মাসের ৩০ অক্টোবর (শুক্রবার ) ৮ ও ৯ নম্বর পিলারের ওপর ৩৫তম স্প্যান (স্প্যান ২-বি), আগামী মাসের ৪ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার) ২ ও ৩ নম্বর পিলারে ৩৬তম স্প্যান (স্প্যান ১-বি), ১১ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার) ৯ ও ১০ নম্বর পিলারে ৩৭তম স্প্যান (স্প্যান ২-সি), ১৬ নভেম্বর (সোমবার) ১ ও ২ নম্বর পিলারে ৩৮তম স্প্যান ( স্প্যান ১-এ), ২৩ নভেম্বর (সোমবার) ১০ ও ১১ নম্বর পিলারে ৩৯তম স্প্যান (স্প্যান ২-ডি), ২ ডিসেম্বর (বুধবার) ১১ ও ১২ নম্বর খুঁটিতে ৪০তম স্প্যান (স্প্যান ২-ই) ও সর্বশেষ আগামী ১০ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) ১২ ও ১৩ নম্বর পিলারের ওপর ৪১ নম্বর স্প্যানটি (স্প্যান ২-এফ) বসানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। তৈরী সম্পন্ন প্রতিটি স্প্যান মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে সংরক্ষিত আছে।

 

পদ্মা সেতু নির্মাণে মোট ২ হাজার ৯১৭টি রোড ওয়ে স্লার প্রয়োজনের কথা বলা হয়েছে। তবে, ইতিমধ্যে বসানো হয়েছে ১ হাজার ৪১টির বেশি রোড স্লাব। রেলওয়ে স্ল্যাব বসানো হবে মোট ২ হাজার ৯৫৯টি । তারমধ্যে এপর্যন্ত বসানো হয়েছে  রেলওয়ে স্ল্যাব ১ হাজার ৫০০টির বেশি।

 

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু করেন বতর্মান আওমীলীগ নেতৃত্বাধীন সরকার। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর পিলারে সর্বপ্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে শুরুহয় পদ্মা সেতু প্রকল্পের কর্মযজ্ঞ। তখন থেকে এক এক করে পর্যায়ক্রমে বসানো হল ৩৪টি স্প্যান। মোট ৩০ হাজার ১৯৩ দশমিক ৩৯ কোটি টাকা ব্যয়ে গৃহীত এই প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৮১ দশমিক ৫০ ভাগ এবং আর্থিক অগ্রগতি ৮৭ দশমিক ৫৫ ভাগ। নদী শাসন কাজের বাস্তব অগ্রগতি ৭৪ দশমিক ৫০ ভাগ। এ বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ব্যয় হয়েছে ২৩ হাজার ৭৯৬ দশমিক ২৪ কোটি টাকা।

 

এই বিভাগের জনপ্রিয়