Comilla TV - The First online TV of Comilla

দাউদকান্দিতে বোন, ভগ্নিপতি ও স্বামী মিলে স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ

ওমর ফারুক মিয়াজী

কুমিল্লা.টিভি

প্রকাশিত : ০৪:১৫ পিএম, ৯ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৭:৩৮ পিএম, ৯ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

দাউদকান্দিতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বোন , ভগ্নিপতি  ও ঘাতক স্বামী আলমগীর মিলে স্ত্রীকে হত্যার  অভিযোগ পাওয়া গেছে । ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাতে উপজেলা ইলিয়টগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়নের ভেকিনগর গ্রামে। নিহত গৃহবধূ শাহিনুর বেগম ঘাতক স্বামী আলমগীর হোসেন এর স্ত্রী।

তার ছয় বছরের নূসরাত ও নয় মাসের খাদিজা দুটি সন্তান রয়েছে। নিহত গৃহবধূ লাশ ময়না তদন্তের পর বৃহস্পতিবার তার লাশ দাফন করা হয়েছে। ঘাতক স্বামী আলমগীর হোসেনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।


পুলিশ ও ভুক্তভোগী সূত্র জানা যায়, উপজেলা ভেকিনগর গ্রামের কাসেম আলীর ছেলে মাছ ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেন প্রেম করে আট বছর একই গ্রামের শাহিনূর বেগমকে বিয়ে করে। বিয়ের পর থেকে শাশুড়ি ননদ উম্মেহানি সহ শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতো।

এর জের ধরে গতকাল তার স্বামী আলমগীর হোসেন তার দুই শিশু কন্যার জন্য ৫টি কলা কিনে যায়। তার ননদ উম্মেহানি তার স্বামী আরিফ বেড়াতে আসলে তিনটি কলা তার ভাগনীদের দেয়। আর দুটি কলা তার স্ত্রী শাহিনূরের হাতে দেয়। তার ননদ দুটি কলাও ভাবীর কাছ থেকে ছিনয়ে নেয়।

এ নিয়ে শাহিনূর সাথ ঝগড়া বিবাদ হয়। এ জের ধরে রাতে আলমগীরের বোন উম্মহানি ও তার জামাই আরিফ তিনজনে মিলে স্ত্রী শাহিনূরকে শারীরিক নির্যাতন ও গলাটিপে হত্যা করে। তার গলায় ওলনা দিয়ে ঘরে ফ্যানে মধ্যে আটকে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ আলামত বুঝতে পেরে ঘাতক স্বামী আলমগীরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ব্যপারে নিহতের বোন কোহিনূর বেগম বলেন, বিয়ের পর থেকেই তার শাশুড়ী ও ননদ তিনজনে প্রায় নির্যাতন করে আসছে। গতকাল কলা নিয়ে ঝগড়া করে আমার বোনকে গলাটিপে হত্যা করেছে। এ শিশু সন্তানকে এতিম করেছে তারা। আমরা এ নির্মম হত্যার বিচার চাই।

দাউদকান্দি মডেল থানা ওসি মোঃ রফিকুল ইসলাম এর সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, নিহতদের স্বামী আলমগীরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘাতক স্বামী আলমগীর প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাধে তার বোন ও তার স্বামী আরিফ মিলে হত্যা করেছে। এ ব্যাপারে থানায় হত্যা মামলা নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

 

এই বিভাগের জনপ্রিয়